বৃহস্পতিবার, 30 মে, 2024

সুদানফেরত বাংলাদেশি কর্মীদের পুনর্বাসনে সহযোগিতা করবে সরকার

গৃহযুদ্ধের শিকার সুদানে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক বাংলাদেশি নানা পেশায় কর্মরত। কিন্তু দেশটিতে রাজনৈতিক অস্থিরতা আর বিবাদমান পক্ষসমূহের সংঘাতের কারণে সেখানে অবস্থারত বাংলাদেশিরা ঝুঁকির মধ্যে পড়ে। এরকম পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সরকার তাদেরকে দ্রুত নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনে। এবার সুদান থেকে ফেরত আসা প্রায় সাত শতাধিক বাংলাদেশি কর্মীকে আর্থসামাজিক পুনর্বাসনের উদ্যোগ নিল সরকার। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এর সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে গতকাল অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

উক্ত বৈঠকে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে:

ক) যেসব কর্মী দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে আগ্রহী তাদেরকে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিধান প্রতিপালন সাপেক্ষে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক হতে বিনা জামানতে ০৩ লক্ষ টাকা, সহ-জামানতে ০৫ লক্ষ টাকা এবং জামানতসহ ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ ঋণ প্রদান করা হবে।

খ) সুদান ফেরত যেসব কর্মী পুনরায় বিদেশ যেতে চান,  প্রয়োজনীয় যোগ্যতাসাপেক্ষে তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাদের পছন্দের দেশে গমনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা প্রদান করা হবে। বিশেষ করে সরকারি রিক্রুটিং এজেন্সি বোয়েসেল জর্ডান, দক্ষিণ কোরিয়া এবং অন্য যেসব দেশে কর্মী পাঠায় সেখানে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাদের নেয়া হবে।

গ) আগ্রহী কর্মীদের বিনামূল্যে দক্ষতা উন্নয়ন/ উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ/ কাউন্সেলিং প্রদান করা হবে।

বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, পুনর্বাসনের লক্ষ্যে গৃহীত উদ্যোগসমূহ কার্যকরভাবে বাস্তবায়নের জন্য প্রত্যাগত কর্মীদের সাথে যোগাযোগপূর্বক আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে একটি তথ্যভান্ডার প্রস্তুত করা হবে। এ বিষয়ে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড/সংশ্লিষ্ট জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের (DEMO) দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ প্রত্যাগত কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন।

এ ব্যাপারে সুদান প্রত্যাগত সবাইকে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন মন্ত্রী।

উল্লেখ্য, বিস্তারিত তথ্যের জন্য প্রত্যাগত কর্মীদের সংশ্লিষ্ট জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে (DEMO) যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। DEMO-এর ঠিকানা www.bmet.gov.bd-তে পাওয়া যাবে।

আরো পড়ুন: অভিবাসন খাতের উন্নয়নে কাজ করতে হবে সম্মিলিতভাবে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ খায়রুল আলম, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক মোঃ হামিদুর রহমান, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো’র মহাপরিচালক মোঃ শহিদুল আলম এনডিসি, বোয়েসেল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেন, মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোঃ সাজ্জাদ হোসেন ভূঞা, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মজিবর রহমান প্রমুখ।

Get in Touch

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Related Articles

অভিবাসীর সঙ্গে থাকুন

10,504FansLike
2FollowersFollow
97SubscribersSubscribe

সাম্প্রতিক ঘটনা